মেয়েদের পছন্দ কেমন?

মেয়েদের পছন্দ

মেয়েদের পছন্দ কেমন এমন প্রশ্নে অনেকেই বলে থাকবে হ্যান্ডসাম চালাক রাজনীতিবিদ সহ আরও বিভিন্ন অ্যাঙ্গেল। কিন্তু সত্যিকার অর্থে সব মেয়েদের পছন্দ একইভাবে হয়ে থাকে না সবার পছন্দ ডিফারেন্ট হয়ে থাকে। সবার পছন্দ কখনো একরকম হতে পারে না কেননা পৃথিবীতে যত মানুষ রয়েছে সবাই সবার মত হয়ে চিন্তা করে সবাই সবার মত করে আলাদা তাই সবার পছন্দই আলাদা হয়ে আছে।

মেয়েদের পছন্দ তবে অদ্ভুত হয়ে থাকে। কেননা তাদের পছন্দের কালার ধরন সব কিছু অন্যরকম হয়ে থাকে। তারা যেমনটি পছন্দ করে এমনকি অনেক সময় পায় না আবার অনেক সময় পেয়েও থাকে। তবে তাদের পছন্দের গুরুত্ব অপরিসীম।

মেয়েদের পছন্দ কেমন?

মেয়েদের পছন্দ হ্যান্ডসাম তবে শিক্ষিত। তারা শিক্ষিত ছেলেদের খুব বেশি পছন্দ করে। শিক্ষিত ছেলেদের ভালো লাগে তাদের। দেখবেন ভদ্র মেয়ে যারা আছেন যারা সমাজের বোঝা নয় যেন সমাজকে এগিয়ে নিয়ে যেতে চায় তারা কখনো অশিক্ষিত মূর্খ কোন ছেলের সাথে রিলেশন কিভাবে আবদ্ধ হয় না।

তারা সবাই সব সময় শিক্ষিত ছেলেদের সাথেই থাকে। বিশেষ করে সব মেয়েদের পছন্দ টাকাওয়ালা ছেলে এমনটা সবাই বলে থাকে কিন্তু এই কথার গুরুত্ব আমি মনে ০% কেননা সবার চিন্তাধারা একই না যেটা আমি আগেও বলেছি তাই সবার চিন্তা একভাবে কখনো মেনে নেয়া যাবে না।

►► আরো দেখো: পরিশ্রম না করেই রাতারাতি কোটিপতি হওয়ার স্বপ্ন! 
►► আরো দেখো:  অনলাইন ক্যারিয়ার গঠন! কিভাবে সম্ভব?

সব মেয়েরা আসলে টাকার পাগল নয়। অনেক অনেক মেয়েরা আছে যারা চাচ্ছেন নিজের জীবনটা সুখি হোক তারা যাচ্ছেন তাদের ফ্যামিলি টা সুন্দর এবং আকর্ষণীয় হোক তারা চায় না টাকাপয়সা তারা চায় ভালোবাসা মানুষের আত্মতৃপ্তি। টাকা পয়সা থাকলেই যে মানুষের মধ্যে ভালোবাসা আসিলো আত্মতৃপ্তি আসবে এমনটা কিন্তু কখনো না।

টাকা-পয়সার মানুষকে আত্ম তৃপ্তি দিতে পারে না এটা পারে কেবলমাত্র মানুষের মধ্যে দন্ড সৃষ্টি করে দিতে। এরা পারে সারাক্ষণ মানুষের মধ্যে অসংখ্য ঝামেলা সৃষ্টি করে দিতে। টাকা হলেই শান্তি হবে এমনটা কোন বই-পুস্তকে নেই এটা কেবলমাত্র মানুষের মনের কথা। তবে এটা সবার মনের কথা নয় খুব অল্প সংখ্যক মানুষ এমনটা ভেবে থাকেন।

মেয়েরা কি পছন্দ করে না?

মেয়েদের পছন্দ

সব মেয়েদের উদ্দেশ্যে বলছি না এটা কিছু কিছু ক্ষেত্রে উল্টো হয়ে যায় যেমন যারা ভাল খুব ভাল অথবা যারা ভালো পরিবারের তারা কখনো রাজনীতিবিদ বকাটে নেশাখোর ছেলেদের পছন্দ করে না বরং তাদেরকে ঘৃণার চোখে দেখ। বরং তাদেরকে অপমান জড়িত কথার চোখে রাখে তাদেরকে নির্যাতনকারীর চোখে দেখে তারা কখনো ভালো মানুষ হতে পারে না এমন চোখে দ্যাখে আর এটা অস্বাভাবিক কিছু না।

তবে যারা ভালো পরিবারের সদস্য তারা হ্যান্ডসাম শিক্ষিত ভদ্র নম্র এমন টাইপের ছেলেদের পছন্দ করে থাকে। আপনি সারাক্ষণ প্যান্ট-শার্ট পরে ঘুরবেন সারাক্ষণ আপনি করবেন আপনার জুনিয়র যারা আছে তাদেরকে মারধর করবেন এতে করে আপনারা কেউ পছন্দ করবে এটা ভাবলে ভুল হবে তবে হ্যা কিছু কিছু ক্ষেত্রে পছন্দ করবে যারা আপনার টাইপের মেয়ে আছেন তারা তবে যারা ভদ্র টাইপের মেয়ে তারা কখনো এই ধরনের কার্যকলাপ পছন্দ করে না বরং এগুলোকে প্রচুর ঘৃণা করে।

যারা ভদ্র মেয়ে তারা পছন্দ করেন লেখাপড়া নিয়ে ব্যস্ত থাকা অথবা চাকরি নিয়ে ব্যস্ত না থাকলে পরিবারের সবার সাথে মিলেমিশে থাকে তার বন্ধুদের সাথে তেমন বেশি আড্ডা হয়না নেশা করে না রাজনীতি নামের বাধ্যকতা নেই এমন ছেলেদের পছন্দ অধিকাংশ মেয়েরাই করে থাকেন।

তবে সমাজের কিছু কিছু জায়গায় দেখা যায় বিভিন্ন সময় বিভিন্নভাবে বিভিন্ন বয়সের তরুণ-তরুণীরা নির্যাতিত হচ্ছে সমাজের কাছে বিবেকের কাছে মানুষের কাছে। তবে আমি মনে করি এই নির্যাতনের কারণ আমরাই আমরা সমাজকে এগিয়ে নিয়ে যেতে পারছি না বরং এটাকে দিন দিন পিছিয়ে দিচ্ছি। এর কারণ হচ্ছে, আমরা যখন দেখি একটা মানুষ বিপদে পড়েছে তখন তাকে সহযোগিতা না করে তাকে আরো কিভাবে বিপদে ফেলা যায় সেদিকে আমরা অগ্রসর হই তাই আমাদের সমাজ আজ অফিসে পড়ে আছে আমরা কারো ভালো কিংবা কারো উপকার করতে চাই না কিন্তু উপকার করতে পারি না বরং তাকে ক্ষতিসাধন করতে আমরা খুবই আগ্রহী হয়ে থাকে এজন্য আমরা আজও পিছনে পড়ে আছি।

স্মার্ট কিভাবে হওয়া যায়?

মেয়েদের পছন্দমত একটা স্মার্ট ছেলে হতে হলে আপনাকে প্রচুর সাধন করতে হবে আপনাকে প্রচুর সময় কষ্ট করতে হবে কেননা, কোন মেয়ে চাইবে না আপনি খারাপ পথে হাঁটেন খারাপ নেশা করেন অসংখ্য মেয়ের সাথে রিলেশনে আবদ্ধ হন।

প্রত্যেকটা মেয়ের ইচ্ছে যে, আপনি সঠিক এবং সরল পথে জীবন যাপন করুন আপনি লেখাপড়ায় ব্যস্ত থাকুন আপনি চাকরিজীবী হোন আপনি পরিবারের সবার সাথে মিলেমিশে থাকুন তাহলে দেখবেন আপনাকে সব মেয়েরাই পছন্দ করছে এমনকি আপনি প্রচুর প্রপোজাল পাচ্ছেন।

এছাড়াও যারা বিভিন্ন খারাপ কাজে জড়িত তারা চাইলে নিজেকে ভালো পথে আনতে। নিজের খারাপ কাজগুলো কে বাদ দিয়ে ভালো কাজগুলোকে বেছে নিতে হবে সব সময় ভদ্র পোশাক পরতে হবে চুলের কাটিং সহ সবকিছু যেন ভদ্র হয় এমন হবে নিজেকে সাজাতে হবে নিজের কথাবার্তার মধ্যে পরিবর্তন আনতে হবে নিজের আচার আচরণের মধ্যে পরিবর্তন আনতে হবে সবার সাথে চলাফেরায় পরিবর্তন আনতে হবে পরিবারের সবার সাথে ওঠা ভাষাতে পরিবর্তন আনতে হবে এবং এই পরিবর্তনের ফলে আপনার জীবন পাল্টে যাবে।

আমি বলছি না যে হুট করে একটা খারাপ অভ্যাস ত্যাগ করতে কারণ এটা কখনোই সম্ভব না। যেকোনো একটা খারাপ অভ্যাস ত্যাগ করতে দীর্ঘ সময় লেগে যায় তবে নিজের যদি ইচ্ছে থাকে তাহলে সেটা অল্প সময়ের মধ্যে হয়ে যায়।

স্মোকিং সহ বিভিন্ন খারাপ নেশা সহ বিভিন্ন পেশা থাকতে পারে যে তোমরা মানুষ আমরা অনেক ধরনের ভুল করে থাকি আর এই ভুলগুলো থেকে আমাদের শিক্ষা নিতে হবে এবং এই ভুলগুলো অস্বাভাবিক কিছু নয় এগুলো আমাদের দৈনন্দিন জীবনে হয়ে থাকে। ভুলগুলো করে ভেঙ্গে পড়লে চলবে না অবশ্যই ভুলগুলো শুধরে নিতে হবে এবং সামনের দিনগুলো যেন ভুল না হয় সেদিকে পর্যাপ্ত খেয়াল এবং পর্যাপ্ত নজরদারি রাখতে হবে।

সর্বশেষ

মেয়েদের পছন্দ

মানুষ বড়ই নিষ্ঠুর তাই কাউকে খুব অল্প সময়ের মধ্যে বিশ্বাস করা ঠিক না এটা পুরোপুরি বোকামো। মানুষকে বিশ্বাস করবেন তবে এটা এমন ভাবে নয় যেখানে আপনি অন্ধ বিশ্বাস করলে ঠকতে মোটেও দ্বিধাবোধ করবেন না। কাউকে অন্ধ বিশ্বাস করার মানে এমন নয় যে আপনি ঠকে যাবেন তবুও তাকে বিশ্বাস করে যাবেন।

আমরা জানি এই পৃথিবীতে সবাই সবার মত করে স্বার্থ নিয়ে ব্যস্ত কেউ কারো স্বার্থে ভাগীদার নয়। তাই নিজের স্বার্থকে বড় করতে নিজের স্বার্থকে সফল করতে নিজের প্রচেষ্টায় বাইরে কিছুই না।

সর্বোপরি: স্বপ্নের পছন্দ এক না এটা আগেও বলেছি কিছু বাজে খারাপ মেয়ে আছে কিছু ভালো মেয়ে আছে তাদের পছন্দ দেখবেন সম্পূর্ণ ডিফারেন্ট অনেক অনেক তফাৎ তাদের পছন্দের মধ্যে তাই তাদের পছন্দের পাত্র হতে হলে আপনাকে অবশ্যই ভালো দিকে চলতে হবে ভালো পথে চলতে হবে ভালো পথে হাঁটতে।

মনে রাখবেন, একটা খারাপ মেয়ের পছন্দ কিন্তু ভালো ছেলে হয়ে থাকে তাই ভালো ছেলে হতে হলে উপরে যেগুলো বলা হয়েছে সবগুলো আপনাকে মেনে। মেয়েদের পছন্দ মত হতে হলে উপরের নিয়মগুলো মেনে চলা বাস্তবতা। নিজেকে সঠিক পথে এগিয়ে আসুন দেখবেন আপনার পিছনে মানুষ হইচই করে ঘুরছে আপনাকে অনুসরণ করছে।

You May Also Like

Leave a Reply

Your email address will not be published.